তি তত যেহাত্তি তৎ, কচিহ। মং সমস্তবিজ্ঞান-শাস্রকোষং বিছুরববুধাঃ 4

৬৬ পু

আর সমন্যই ইহাতে আছেশ স্ব মাই, ভীহ কুপ্রাপি দাই এই গ্রস্থ -.. অধ্যাত্মবিজ্ঞান শাস্ত্রের ক্ষোবন্যযপ। .

৮০-৪৯3 * নু

্ববান্ধ। বরাগ্য, মুমুক্ষুব্যবহার, উৎপত্তি স্থিতি প্রকরণ

অধ্যাপক

কালীবর বেদাস্তবাগীশ ভট্টাচার্য কর্তৃক অনুভাষিত

আনত পতটি

8 রাইটার

25১

চি

কলিকাতা বহুবাজার স্্রীট্‌ ২১৪ সংখাঝ-্ব বন্ধ... রঃ বা ষ্ঠ -মহারামায়গ স্যতে বিটি ৯২ ১, ' প্ীচারুচজ্জ হিজর - মি টি /1&

১0110140591]

4) . (| (090100

! 1 - ! ( : 7 (10.

[শি মহারামায়ণ।

বেরাগ্যপ্রকরণ

গ্রথম সগ 1?

রি লে যাহা ভইতে সমুদার ভূত আবিভুতি হশ, বর্তমানে বাহাতে স্থিনি দা বাহাতে সকল উপশম প্রাপ্ত অর্থাৎ বিলীন হয, "সেই অন, রঙ্গের উদ্বেশে নমঙ্কার১। মে চিদেকরস বঙ্গ বস্ত হইতে জের, দষ্টা, দর্শন, দৃগ্ঠ, কর্তা, হেতু ক্রিঘা, এই সকল তন গ্রাভূতি হইনাছে, সেই সাক্ষা হচ্ঞানন্বরূপ পরক্গের উদ্দেশে টার ্রি, |

যে রি পুর্ণ শিরভিশখনিন্ধমহোদবি হইতে আনন্দকণা আকাশে পি | ঝা, ব্রদপোক্ান্ত বর্ণ লোকে মনুষ্যাদি স্তম্ব পর্যন্ত জীবলোকে [ক্পপে প্রকাশ পাইতেছে বাহার আনন্দকণা জীবের জীবন, সেই ব্ধপ পববন্গকে নমন্কারগ। *

উ্ক্ষ-সচ্চিদা লী. সেই জন্য ঠাহাকে সং, রি আনন্দ, এই ডিন শবে ভিডি টি! তদনুনাবে প্রথন শোকে সদ্রপেব, দ্বিতীয় প্লোকে চিদ্রপের তৃতীয় শ্লোকে র়পব ২মলণ কনা ভউষাছে। ফলকন্ে সৎ. চিৎ আশ্ম-দ, এই তিন শব্দ একস তরঙ্গ,

বাবাচক। যে সত, সেই চিৎ, সেই আনন্দ নী চি, আনন্দ, এই

ছক প্রাণা দি. গ্রহণ কবায় কত্তী, ফলভোক্ত ভ।বে নি তিইওয়াঘ হেত, কিয়ানুসাবী হগলায খিযা। তিনি এবন্প্রক!লে স্দাস্মদ।

হা বাশিষ্-মহারামায়ণ।

পাতনিক! |

স্তীক্ষ নামক জনৈক ক্রাঙ্গণ সংশরাবিষ্টচিন্তে মহর্ষি অগস্তির আশ্র গমন করিষা শিষ্যোচিত বিনয়াদি সহকারে অভিবাদনাদি করতঃ মুনিবে গিজ্ঞাপা করিলেন, ভগবন্! আপনি ধর্মারহস্তবেত্তা সর্বশান্্ধৎ। আমা এক মহান্‌ স'শর উপস্থিত হইনাঁছে তাহা আপনি কৃপা করিরা বলুন। অর্থা উপদেশ প্রদান দ্বারা আমার সে সংশর অপনোদন করুন্*। আমার সংশ এই রে"কর্ধ নোক্ষে কারণ ? কিজ্ঞান মোক্ষের কারণ ? অথবা কর্ম, জ্ঞম উতর মোক্ষের সাধন? এই পক্ষত্ররের মধ্যে কোনটা যথার্থ তাহা আমা নিশ্চন করিয়া বলুনণ।5 |

অগন্তি কহিলেন, স্তৃতীক্ষ ! পর্ষিগণ ধেমন উভয় পক্ষ দ্বারা আকশি পে বিচরণ করে, এক পক্ষ অবলদ্বনে গগনমার্গে বিচরণ করিতে সমর্থ হয় তেমনি জীবগণও জ্ঞান, কম্ম, উভন্ধ মবলম্বন করিনা পরম পদ মোঁক্ষ লাঁ করিয়া থাকে" কেবন কর্দে কেবল জ্ঞানে মোক্ষ হঘ না। জ্ঞান কর্ম * উভয়ের দ্বারা মোক্ষলাত হর বগিয়া সাধুগণ উভমকেই মোক্ষের সাধ অর্থাৎ উপায় বপিনা জাঁনেন। এই বিষয়ে তোমর নিকট একটা, ইতিহ্থা বৃণি, বণ কর”

পূর্বকালে অগ্থিবেগ্ঠ মুনির পুজ বেদবেদাঙ্গপারগ সর্শান্ববিশারদ কারণ নার্ষে এক ত্রাঙ্মণ ছিলেন তিনি গুরুণহে অবস্থান করতঃ বেদাধ্যঘ়ন সম্গঃ "করিয়া দীর্ঘক।ল পরে স্বগৃহে প্রত্যাগত হইলেন৯।১০ |

পুর্বে কর্মকাণ্ডের প্রতি তাহার সংশয় জন্মিষাছিল, এক্ষণে তিনি গর আপিয়া কর্মমত্যগী হইয়া গিকর্খে কালযাপন করিতে লাগিলেন। এদিে অগ্নিবেন্ত দেখিলেন, পুজ অন্ধ্যাবন্দনাদি অন্ুষ্েম্ কশ্ম কিছুই কর্ধে না, বঞ্জিত হইরা কালবপন করিতেছে১১। অনন্তর ভিশি পুত্রকে তাহা হিতার্থে এইরূপ এইরূপ কথ! বলিতে লাগিলেন। প্পুত্র! একি! তু স্বকর্ম্ের পালন করিতেছ না কেন ?১২ হন কর্ম্মবিবঙ্জিত টি কি প্রকা্

* জ্ঞান কর্ম পরস্পর বিবোধী জ্ঞান শব্দে তত্ব জ্ঞান। জ্ঞানকালে কর্ণ হয় না, কর্মকা জ্ঞান অভিষঠত হয। সবতরাং বুঝিতে হহবে, জ্ঞান কর্ধের সমুচ্চয় নহে, কিন্তু অঙ্গপ্রধানভা অর্থাৎ উপকাধাউপকারকভাব। আগে কণ্ম, পরে ততপ্রভাবে জ্ঞন। মর্ম কথা এই যে, কণ দ্বার। চিত্তমন ন্ট হয়, তাদৃশচিত্তে তস্থ জ্ঞান প্রাদূভূতি হয়।

গণ _বৈরাগ্য প্রকরণ

দ্িলাভককৰিবে তাহ! আমায় বল। এবং তোমার এই কন্মপরিত্যাগের, কারণ চট তাহাও বল”১৩

কারুণ্য বলিঞ্ীন, “মবণাবধি অগ্নিহোত্রাদি যাগ করিবেক, নিত্য সন্ধ্যা নাদি কপ্টরবেক” এই সকল বাক্য (শ্রুতি ) তদ্বেঠিবিত ধর্শসকল প্রবৃত্তি- টত। এতদন্রূপ স্মৃতিবাক্যও আছে?

“ধনের দ্বারা, কর্মের দ্বারা সন্তানোতপত্তির দ্বারা মোঁক্ষ ভয় না। পূর্ব কোলে প্রধান . প্রধান যতিগণ কেবল মাত্র পরিত্যাগের দ্বারা অর্থাৎ সন্ন্যাস দ্বারা যুক্তিলাঁভ করিয়াছিলেন” সকল বাক্য নিবৃত্তিঘটিত, ঘর হে পিতঃ! “্দাবজ্্রীবন অগ্নিহোতাদি করিবেক”। “নিত্য সন্ধা রি ্রন্দনা ) করিবেক” ইহাও তি বাক্য এবং “কর্মাদির দ্বাবা মোক্ষ | না, তাহা কেবল ত্যাগ দ্বারাই হর” ইহাও অতি বাক্য দ্বিবিধ শ্রুতি ফান উক্ত উভমের কোন্‌ পথ অবলম্বনীষ তাহা বুঝিতে না পারায় সন্দিগ্ধ

রি কন্মান্টটানে বিবত হইসাছি১৬। অগন্তি কহিণেন, কারুণ্য পিতাকে এইবপ বলিশা মৌনাবলম্বন করিলেন। অগ্রিবেষ্ত পুজকে মৌন দেখিগা পুনর্ধার কহিলেন১৭ পুক্র! নি তে [সাকে,একটা মহতী কথা বলি, অবণ কর। শুনিয়া তাহা জদয়ে ধারণ ও, বিচার করিও, পৰে দাহা ইচ্ছা ভাহা কৰিও১৮। পুর্বে, হিমালয়ের থে কামসন্তপ্তা কিশ্রপীসমূহ কিন্নরগণের সহিত পরম স্থখে বিহার ও$মযুর . গণ প্রমোদ সহ্কাবে জীড়া করিয়া থাকে, যে স্থানে সর্ধপাপনাশিনী গঙ্গা [ষমূনা প্রবাঠিতা ভইতেছেন, সেই পরম পবিত্র প্রদেশে স্ুরুচীনারী এক” জানা একদা উপবিষ্টা ছিলেন১৯।২”। স্ুক্চি যদচ্ছাক্রমে নেত্র পরিচালন বিতে বন্ূণতে দেখিলেন, ইন্দদূত তাহার সন্মুখস্কন্তরীক্ষ পথে গমন করিতে-* ন। মহাভগাবতী স্ুক্চি ইন্দ্রদুতকে দেখিয়া কহিলেন, হে মহাভাগ ! পনি কোথ| হইতে আগমন করিতেছেন এবং সম্প্রতি কোথাইবা গমন রিবেন ভাহ! আমার কৃপা করিধা বলুন২১।২২ |

দেবদূত বলিলেন, সুক্র ! তুমি উত্তম কথা জিজ্ঞাসা করিয়াছ। যে নিমিত্ত স্থানে গিযাছিলাম তাহা ভোমার নিকট বর্ণন করি, শ্রবণ কর। হে [বণিনি! ধম্মরাল রাজর্ষি অরিষ্টনেমি বৈরাগা অবলম্বন পূর্বক পুভ্রের তি রাজ্যভার সমপ্পণ করতঃ তপোহুগ্ান বাসনায় বনে গমন করিয়াছেন নি এক্ষণে জুবম্য গন্ধমাদন পর্বতে দুশ্চর ভপস্তাঁয় নিমগ্র আছেন২৩।২১।

বাশিষ্ঠ*মহারামামণ | সর্গ

হু

আমি সুরপতির আজায় তাহার নিকট গমন করিয়াছিলাম ; এক্ষণে . সাহাব ঘেই আদি কার্ধ্য নির্বাহ করিসা সে স্থানেন বৃত্তান্ত ধিদিত করিবার জন্য পুনর্ব।র স্থরপতিব সন্নিধানে গমন করিতেছি “০সুরুচি বাঁললেন, প্রভো! রাজর্ধির সহিত আপনার কিন্ধপ কথোপকথন হইল তাহা শুনিতে ইচ্ছা করি। আনি বিনয়সহকারে জিজ্ঞানী করিতেছি, আপনি বলুন) - অবহেলা করিবেন না১»। দেবদূত কহিলেন, ভদ্র! তথাকার গমুদায়ঃ বুস্তান্ত বর্ণন করি, শ্রবণ কর। বাঁধি অরিষ্টনেমি দেই গন্ধমাদনশূঙ্গস্থ মনোহর কাননে যাঁর পর নাই কঠোর তপপ্যাৰ প্রবৃ্ত আছেন" আুররাজ ইন্দ্র তাহা জ্ঞাত হইঘা আমাকে আদ! করিলেন, “দূত! তুমি না অপ্দর, সিদ্ধ, কিন্ন ঘক্ষগণ পবিশোভিত এবং বেএ, বীণা মৃদক্ষাদি বিবিধ সুমধুর বাদ্যে নিনাদিত উত্কষ্ট বিমান লইঈনা গন্ধমাদন পর্বতের শাল, তাল, ভমাল, হিন্তালি প্রভৃতি তরুবর নিকন পরিশোভিভ পৰি শঙ্গে গমন কর এবং সদত্রে তদপ্ধি রাজর্ষি অবিষ্টনেমিষে আরোহণ কবৰাইনা আমার এই গ্কানে আনদন কব তিশি এই শ্তানে আিথা তপঃফন স্ব ভোগ ককন?প১৯০1৮১। সাধুণালে! দেবরাজ ইন্দ্র কড়ক আমি কথিত গ্রকাবে অন্তজ্ঞাত রা রাঃ নিথিলভেগোপকরণসমশ্িত সর্দলক্ষণসম্পন্ দেববিমান গ্রংণ- পূর্বক অটনবাজ গন্ধমাদনের শিখর প্রদেশে গমন কপিলাম১১ 1 অনন্তব রাম আশ্রমে গমন পূর্বাক স্ুরপতি আমাকে যেরূপ আদেশ ধা ছিলেন ন্যাহা তাহাকে সমন্তই বিদিত করিলামতত | হে শুভে! বার্বি অশিষ্টনেমি আদার সেই বাক্য অবণ করিয়া সন্দিগ্ধ মনে বলিলেন, হে দত! আদি ছোমাব নিকট কিছু জানিতে ইচ্ছা করি। তুমিই আমার ওশ্ের গঠাত্তব দিতে সমর্থ*। স্বর্গে কি কি গুণ কিকি দোষ আছে ভাহা আম।ব নিকট বর্ণন কর, আমি তাহা বিদিত হইরা পশ্চাত কুচি অন্থনারে স্বর্গে বায ন। সাগঘা অর্থাৎ স্বর্গবাস স্বীক।র কৰিব কি না! তাহা স্থিব কর্সিব”৭ | অনন্ব আমি কহিলাম, পুণ্যের প্রাচ্র্যা থ।কিলে সর্গে উৎকৃষ্ট ফলভোগ হম। উংকষ্ট পুণা থাকিলে উংকষ্ট স্বর্গ লাভ করা যার়১৬। এবং মধ্যম পুখ্যে মধাম স্বর্ণই লব্ধ হইদ। থাকে, তাহার অন্যথা হয় না। পুণ্যের অপকৃষ্ট ঘ|কিলে ভাহাব স্বগও হাদৃশ হইযা থকেত৭।৩৮ | . মহাশর | পুণোৰ তাবতম্য অন্থুসারে স্বণ স্থানের তত্রত্য খের

বৈবাগ্য প্রকরণ

রি

তারতম্য কি ঘটনা হইয়া থাকে অন্রত্ম স্বগর্ণরা উত্তম স্বর্গ নিগার উতক্টভা অসহা বোধ করে তুল্যন্বগীরাঁও পবস্পর পরস্পরব ঞতি ঈর্ষা, স্পদ্ধা রাগ করে যাহারা উভ্তম স্বগী তাহাবা অ।পন অপেক্ষা হীন স্বগ্ঠীর হীনতা অর্থাৎ অন্ন সখ দশন করিনা সনন্তাষ লাভ করে। 'যাবহ না পুণ্যক্ষ্ হর তাবহং স্বর্ণবাসীরা এপ উত্তম অধম মপাম সুখ অনুভব করতঃ কল যাপন করিতে থাকে, অনন্তর ক্ষীণপুণা হইষা পুণর্বার এই মণ্ত্য লোকে অ।সিঘা জন্ম গ্রহণ করে। মহারাজ! স্বর্গে এই এইবপ গুণ দোষ বিদ্যমান আছে৯।

হে ভদ্রে! রাজা অরিষ্টনেমি সর্গেব গুণ দোষ আবণ করিষাঁ বলিলেন, দেবদুত! আমি এবি স্ব্থভেোগ বাঞ্ধা করি না” সপ বেষন জীর্ণ ত্বক পরবিভাগ কবে, ভাহৰ ম্যাপ আমি আজ ভইতে আরম্ভ করিরা ঘোরতর ভপোন্ঠান দ্বারা এই শিভান্ত প্ৰণ্য অশুদ্ধ দেহ পরিতাগ করিব*১।

হে দেবদ্ুত! $নি থে স্থান হইতে আগমন করিবাছ, এই বিমান লইয়া (সই স্থানে গনন কব অথবা শ্বপতিব অন্নিধনে গমন কবর; অমি তে।ম।কে নসপ্গার করি | দেবদৃন্ খলিলেন, ভদ্রে! অনন্তর রি দেববাজ সমীপে গমর্পুব্নক হান শিকট সমপ্ত পস্তান্ত শিবেদন কধিলে তিনি ন্ব্গভোগবিতৃষ্জ অপ্লিষ্টনেমি বান্য,.বনি বণ করিনা মাতিশন বিস্মিত হইলেন » অনন্তর দেণাাদ মধুর বাক্যে প্রনর্ধাৰ আমাকে দূত! তুমি গ্রনলা মেই ভডে।থবিস্থ বজবি অনি্নেমিব সমীপে গমন কর তাহাকে সনরিবাহাবে লইস। পবমজ্ঞানী মহধি বাঠ়াকিল অভ্ান্তম আশম পদে গমন এপং মহবিকে আমার সাদর সম্ভাষণ জানাউয়া বশিবে, এই রাজর্ষি

ভি বৈনাগানম্পন্ধ তত 1 ভে মজামুনেখহনি শে মলি, অভিবিনরী, চে স্য পর্থভোগে বিমুখ, সে জন্ঠ দেব্বাঙ্জ্ঞান আদেশ বাভাভে" ইহার তন্বস্ান জন্মে ভাহা কথিত হঠবে। অন্যই ঘথাধথ খিধানে ইহাকে প্রবৃদ্ধ করিতে প্রবুহ্ত হউন" 5 আপনার তাদুশ উপদেশে এই সংসারদ্ুঃথসন্তপ্র রাছর্ন ক্রমে মোকগর লা কবিভে সমর্থ হইলেন হেস্ুুক্র! আুরপতি আমাকে এই বিতীঘ আদেশ প্রদান পূর্বক প্রণর্বাব ধাজর্ধি অরিষ্টনেমির সমীপে প্রেরণ করিলেন৭। অনন্তর অমি জুবপতি উন্মেন আদেশে রাজর্ষি অনিষ্টনেশিকে সমঠিবাহারে লইন্বা মহর্দি বানীকির আশ্রম পদে “গমন করতঃ তাহার শিকট রাজর্ধিৰ মোক্ষপাধনের পিবণ শিবেদন করিলাম*৮।

বাশিষ্ঠ মহারামায়ণ। র্গ

রে

' মহর্ষি বান্দীকি গ্রীতিপুর্বক রাজাকে প্রথমতঃ অনাময প্রশ্ন, তৎপরে আগমন: বার্তা জিজ্ঞাসা করিলেন*৯। তদুন্তরে রাজা কহিলেন, ভগবন্‌! আপনি ধর্ম তত বিশেধতঃ সর্কাবিংশে্ঠ আপনর দর্শনেই অমি কৃতার্থ' এবং তা হাই, আমার পরম কুশল” *হে যাঁড়েখব্যসম্পন্ন! সম্প্রতি আমি জিন্তাস্থ ংসারছুঃখে কাতর বিদ্ব না হয় এরূপ করিয়া আমাকে প্রতিবোধিত করুন থে উপায়ে আমি সংসারবন্ধন হইতে মুক্তি লাভ করিতে পারি সেই উপান্ধ আমাকে উপদেশ করুন"১। বাক্মীকি বপিলেন, রাজন্‌! আমি তোমার নিকট অথগতন্বগ্রতিপাদক _বামারণ বলি, শ্রবণ কর। তুমি বন্রপূর্বক শুনিবে, শুনিবা হদরে ধারণ করিবে, অনন্তর তাহাতেই জীবনুক্তিপদ লাভ করিবে*২। বক্তব্য রামায়ণ নি সন্বাদাআ্বক | * তাহা মুক্তির অদ্বিতীঘ উপায় নিতান্ত শুভাবহ। হে রাজেন্! তুমি তাহা বুঝিতে সমর্থ, আনি বুঝাইতে পার্ক | সেই কারণে রন তাহা তোমাকে বলিব, প্রণিহিত হইমা শ্রবণ করণ। অনন্থর রাজ! জিজ্ঞাসা করিলেন, মহর্ধে! বাম কে? কিংগ্কবূপ ? তিনি কোন্‌ বাম? তিনি কি বন্ধ? না মুক্তম্বভাব? আপনি অগ্রে আমাকে ভাহাই বিদিত করুন অর্থাৎ নিশ্চয় করিয়া বলুন"* | বাদ্দীকি বলিলেন, নিগ্রহগ্গ্রহসমর্থ ভগবান হরি, আভি- শ।প পালন ছলে রাজনেশে অবতীর্ণ হইনাছিলেন | তিনি মর্ধাজ্ঞ হইয়াও ভক্ত বাক্য সত্য কৰিবার শিমিন্ত সামান্য মানবের স্যায় অন্লজ্ঞ হইমাছিলেনৎ৫ রাজা বলিলেন, ভগবন্! অপরাধী ব্যক্তিব।ই শাপগ্রন্ত হয এবং অপরাধ অপূর্ণকাম 'ও অন্ত ব্যঞ্তিতেই সন্ভবে। নিনি চিদানন্দরূপী চিদ্বনমূর্তি পরমে- শ্বর, তাহার আবার অভিশাপ কি? অতএব, তাহার প্রতি অভিশাপ হওয়ার কারণ কি এবং ত্রীহার অভিশপু কে তাহা অ।মাকে বলুন*৬। বান্শীকি কহি- লেন, বস! ত্রঙ্গার ম!নস্*পুন্ বার কামক্রো 2918558 পরম

শা সি

রং *কশিঠা -রান-নশ্বাদাস্মক, এই কথায় সৃচিত হইয়াছে যে, টি র।মকে উপদেশ দিয়া- ছিলেন। বশিঠ গুরু, রাম তাহ|ব শিষ্য কথ|টী বাজনির মনে সন্দেহ উৎপাদন করিয়া- ছিল। সন্দেহ এই যে, অজ্ঞ জীবেরাই অক্ঞভানিবন্ধন জ্ঞান লাভে আঁশ।য় শিষ্য হইয়া থাকে, কিন্ত রীম শ্ষংএদিননাতন, তিনি কেন শিষ্য হইবেন? সুতরাং তাহার সন্দেহ-_কৌন্‌ বাম। তিনি কি রামনামধারী কোন এক জীব? কি ভগবদবতাঁব প্রসিদ্ধ রাম। এইরূপ সন্দেহ হওয়া$তই রাজমি মহমিকে জিজ্ঞ/না করিলেন, কোন বামের কথ] বলিবেন তাহা অগ্রে আমাকে বলুন

সর্ণ বৈরাগ্যপ্রকরণ।

জ্ঞানী) “একদ॥ তিনি ব্রক্মদদনে উপবিষ্ট আছেন এমন সময়ে প্রভু *ত্রৈলো- ক্যাধিপতি বিষণ বৈকু্ হইতে তথায় আগমন করিলেনৎ*। কমলযোনি : (সমপুদয় ব্রহ্গলোৌকনিবাসীর সহিত গাত্রোখান অভ্যর্থনাদির দ্বারা তাহার পুজা করিলেন ; কেবল সনৎকুমার আপনাকে নিষ্ষকাম মনে করিয়া তাহার পুজ। করিলেন না। তদ্দরশনে প্রভু বলিলেন, সনৎকুমার ! তুমি অহঙ্কৃত, তোমার, চেষ্টা গর্বস্চক (আমার আদর না করা ), সেই কারণে তুমি শরজন্মা ( কান্তি- কেম ) নামে বিখ্যাত কামনাপরতন্ত্র (কামাসক্ত ) হইবেৎ৮।৭৯। তৎ্শ্রবণে

২কুমারও সাতিশয় ছুঃখিত'হইয়া বিষ্ণুর প্রতি এই বলিয্বা প্রতিশাপ্চ প্রদান

রলেন যে, আপনাকেও সর্বজ্ঞত্ব পরিত্যাগ পুর্ধক অজ্ঞ জীবের ন্যায় কিঞ্চিৎ কাল অবস্থিতি করিতে হইবে৬*। পুর্বে মহর্ষি ভূপ্তও * বিষুকর্তৃক স্বীয় ভার্য্যা নিহত৷ দেখিয়। ক্রোধভরে তাহাকে এই বলিয়া অভিশাপ প্রদান করিয়াছিলেন যে, অহে বিষণ ! তুমি বেমন আমাকে ভ্ত্রীবিয়োগ ছুঃখে দুঃখিত করিলে তোমাকেও এতদ্রপ ভাধ্যাবিঝোগ দুঃখ অস্থভব করিতে হইবে৬১। পূর্বে বিষুৎ জলন্ধরবপ 1 ধারণ করিয়! তীয় পতিপ্রাণা ভার্ষ্যা বৃন্দীকে বিমো- হিতা তাহার পাতিব্রত্য ভর্গ করিয়াছিলেন, তত্কারণে তিনি বৃন্দাকর্তৃকও অুিশু-হইয়াছিবেন | বুন্দা এই বলিয়া! অভিশাপ প্রদান করিয়ছিলেন যে,

« এস্থলে পৌরাশিক সংবাদ এই যে, খ্যাতি নাক়়া তৃগুপত্ভা পৃববকল্সে বিঝুশরীরে লীনা হষ্টুবাব প্রার্থিনী ছিলেন। বিধুঃ তাহাব সেই প্রীর্থন। পুবণ কবায় ভগ মনে করিলেঞ্স, বিষুর শামা ভায্যা বিনাশ করিলেন। তাহাতেই তিনি ক্রুদ্ধ হহয়। বিষুর প্রতি উক্ত প্রকার অভিশাপ প্রয়েগ করিয়াছিলেন রী 1 ব্রশ্মাবৈবর্তপুরাণে লিখিত আছে, গেলকস্ত সুদাম গোপাল রাধার শাপে দানববুলে জলন্ধর নামে তুলসীনাক্নী এক গোপী ধন্মরধবজ বাজাব পত্ীতে ডৎপন্রা হইয়াছিলেন। জলম্ধর ব্রহ্মার বরে সকলের অবধ্য হইয়াছিল ত্রহ্গ! কাহাকেও নিত্য/মর করেন না, মরণের একটা না একট। গ্লিিত্ত রাখিযা দেন। তাই জলঙ্গরকে বলিয় ছিলেন, তোমার পত্ীর সত্তীত্বনাশ

উলে তোমার ধরণ হইবে নচেৎ তুমি সকলের অবধা থাকি'বৈ। ঝরঘৃপ্ত জলদ্ধর বলপুকক রি গ্রহণ করিলে দেবগণ, ব্রহ্মা শিব তদ্বত্ত।স্ত জ্ৰাপনাথ বেকুণ্ঠে গমন করেন বৈকুপতি নারায়ণ শিবকে তাহাব সহিত যুদ্ধ কবিতে বলেন জলঙ্ধব শিবের সহিত যুদ্ধে প্রবৃত্ত হইলে বিষু জলন্ধররূপে তীয় গৃহে গমন কবতঃ তদীয় পত্রীব সতীত্ব ভঙ্গ করিলেন, দিকে জলন্ধরেবও মৃত্যু হইল বৃন্দ! জলন্ধরের মৃত্যুর পর সেই বা!পার জ্ঞাত হইয়। ভগবান্‌ বিষুকে প্রকার অভিশাপ প্রদান করিয়।ছিলেন। কোন কোন পুস্তকে জলন্ধরের পরিবঞ্তে শঙ্খচুর নাম দৃষ্ট হয়। পদ্মপুরাণে জলন্ধরের উপাখ্যান অন্কপে লিখিত আছে সতা, পবস্ত

হাতেও তৎপত্বী বিষ্ণুকর্তৃক মোহিত! হওয়া বর্ণিত আছে উভয় পুরাণের গস্তাব পা

লোচনা কবিয়া দেখিলে প্রতীত হইবে, বিঞু বৃন্দাকে মাত্র বিমোহিতা করিয়াছিলেন এবং তাহাতেই বৃন্দার পাতিত্রত্য ভক্ত হইয়াছিল। সর্বব্যাপী সব্ধশ্নষ্টা বিষ্ণু পুণ্য পাপ অন্িপ্ত, ইতরাং তাহার কাধ্য দোশাবহ নহে।

ধাশিষ্ঠমহারামাপ।. ১সর্ম

অহে বিষ্ণো ! তুমি যেমন ছলনা করিয়া আমার পাতিব্রত্য ভঙ্গ আমাকে “সন্ত/পিত করিলে, আমার বাক্যে তোমাকেও স্ত্রীবিয়োগনিবন্ধন সম্তাপ ভোগ করিতে হইবে৬২। ভগবান্‌ যখন নৃসিংহরূপ ধারণ করিয়াছিলেন তখন গর্ভবতী দেবদত্তভার্য্যা তাহাকে দেখিয়া পয়োফ্ধীনদীতীরে ভয়ে প্রাণপরিত্যাগ করিমাছিলেন। তাহাতে তদদীয় স্বামী দেবদত্ত ভার্য্যাবিয়োগে কাতর হইয়া তগবান্কে এই বলিয়া অভিশাপ গ্রদান করিয়াছিলেন যে, তুমি যেমন আমাকে স্ত্রীবিয়োগে কাতর করিলে, এইরূপ তুমিও কিঞ্চিংকাল আত্মবিস্ৃত স্ত্রীরিয়োগে কাতর হইবে৬৩।৬৪ | ভক্তবৎসল নারায়ণ এইরূপে ভূণ্ড, সনৎকুমা'র, বুন্দা এবং দেবাত্ত কর্তৃক অভিশাপগ্রন্ত হইর! মাঁনবজন্ম পরিগ্রহ করির়।ছিলেন, এবং তাহাদের শাপানু- ষাঁয়ী সেই সেই কার্য্য স্বীকার করিয়াছিলেন৬ৎ। অভিশাপ-ছলের সমুদায় কারণ তোমাকে বলিলাম, এক্ষণে প্রস্তাবিত কথ! বলি; মন দিয়া শুনত৬। তিনি শ্বীয় শক্তির দ্বারা শাপমোচনে সমর্থ হইলেও ভক্তবৎসলতানিবন্ধন তাহাদের মর্ধ্যাদারক্ষার্থ সেই সেই কার্য করিয়াছিলেন। ভূগুর বৃন্দার শাপে তাহার স্ত্রীবিয়োগ দেব্দত্ত শাপে তাহার গর্ভবতী সীতার বিচ্ছেদ ঘটিয়াছিল। হে মহারাজ! যে যে কারণে ভূতভাবন ভগবান্‌ অদ্াপত্রস্ত হইয়াছিলেন সে সমস্তই তে।মার নিকট কথিত হইল। এক্ষণে তুমি মোক্ষো- পায় 'াঁধন বিষয়ে যাহা আমাকে জিজ্ঞাস। করিয়াছ তাহার নিমিত্ত দ্বাত্রিংশৎ অহ গ্লোক পরিমিত বাশিষ্ঠ নামক মহাঁরামায়ণ তোমার নিকট কীর্তন করিতেছি, অবহিত হইয়া শ্রবণ কর।

প্রথম সর্গ সমগ্ত।

দ্বিতীয় সর্গ।

পপি পপ পি

মোক্ষকথাপ্রারন্ত

++

থিনি স্বর্গে, মহীমগ্ডলে, অন্তবীক্ষে, আমার অন্তরে, তোমার অন্তরে, সকলের অন্তরে বাহিরে নিরন্তর বিরাজমীন অর্থাৎ ধাহার সততায় প্রকাশে নকল সন্তাব।ন্‌ প্রকাঁশিত সেই সর্বস্ব সর্বাবভাসক ব্রহ্গকে নমস্কার*। _.. বান্মীকি কহিলেন, “আমি সংসারবূপ কারাগারে .বদ্ধ আছি, ইহা হইতে /অ [মাকে ঘুক্ত হইতে হইবেই হইবে ।” যাহার এইরূপ ওৎকট্য জন্মিয়াছে এবং যাহারা অত্যন্ত অন্ত নহে, অত্যন্ত জ্ঞানীও নহে, তাহারাই এতৎ শাস্ত্র 'শ্রবণের অধিকারী২। যাহারা পূর্বসপ্তকাও রামায়ণ শ্রবণ পূর্বক তছুদ্দেস্ট বিচার যুক্তিঅনুষ্ঠানাদির দ্বারা চিন্তশুদ্ধি লাভ করিয়া এতগগ্রস্থোক্ত মোক্ষসাধনে চিন্তার্পপ করতঃ মননািতে রত হন তীহারাই পুঅর্জন্ম জয় করিয়া কৃতার্থ হন। অর্থাৎ মুক্ত হনত | *

হে অরিন্দম ! আমি বর্তমানে বিলক্ষণ বট্পঞ্চাশং সহত্র শ্লোক পরিমিত গর্ব উত্তর ছুই খণ্ড রাঁমারণের মধ্যে র।গদ্ধোদি দোঁষের উচ্ছে্দক' উত্তম উপদেশবিশিষ্ট সুতরাং মহাবল বা মহাসামর্থ্যযুক্ত রামকথারূপ চতুর্ব্বংশস্ষি সহজ শ্লোক পরিমিত রামায়ণ গ্রন্থ প্রস্তত করিরা যেরূপ রত্রাকর রত্বার্থকে বত প্রদান কুরেন সেইৰপ 'আমিও আমার প্রিষ্ন শিবা বিনীত শ্রীমান্‌ ভরদ্বাজকে প্রদান করিব/ছিলান ধীমান্‌ ভরদ্বাজ আমার নিকট সেই ট্র্তী বাম

* মুলে থে “কথোপায়” শব্দ আছে,ভাহাৰ পুর সপ্তকাণ্ড রামায়ণ (বালকাণ, অযোধ্যাকাণ্ড, ইত্য।দিক্রমে যে সাত কাও রামায়ণ প্রখ্যাত আছে, তাহা ) অর্থ “যে গ্রন্থ কথায় বালীকি মুনি কর্তৃক ধন্মতত্ব, জ্ঞান তত্ব, ধর্ম নুষ্ঠান ঈশ্বরতত, নির্বব[ণজ্ঞানের উপায়- রূপে শ্রধিত হইয়াছে তাহা! কথে।পায়” এই ব্যুৎপত্তির ছ্বার! লব্ধ হয়। প্রথমে পূর্ধ্ব সপ্তকাণ্ড রামায়ণ শ্রবণ তদর্থ ব। তদ্ুদ্দেশ্য ৰিচার করিতে হয়। তাহাতে শমদমাদিসিদ্ধি সপ্তণ পবমেস্বর বিষয়ক আপাত-জ্ঞান লাভ কর! ষায়। অনন্তর নিগ্ডণ তত্বে অধিকারী হওয়া বার ভাদৃশ অধিকারীর প্রতি এই বেদান্বেদ্য সসাধন পরর্রঙ্গপ্র তপাদক গ্রন্থের উপদেশ

১০ বাশিষ্ঠ মহারামায়ণ। দর্গ

প্রাপ্ত হইরা কোন এক সময়ে সুমেকুপর্বতস্থ মনোহর কাননে ভগঝঠন্‌ বরহ্ধার * নিকট,তাহা কীর্তন করেন। তশশ্রবণে লোৌকপিতামহ ব্রহ্গা তরস্থাজককে বূলেন, পুত্র ! আমি ভোমার প্রতি গ্রীত হইয়াছি, তুমি অভিলধিত বর প্রার্থনা কর। ভরদ্বাজ বলিলেন, হে ভূত.ভবিষ্যৎ বর্তমানের রি হেষটৈস্্যশালীন্‌ জনগণ যাহাতে জন্মমরণাদি ছুঃখ হইতে পরিত্রাণ পাইতে অর্থাৎ মুক্তি পাইতে “পারে তাহাই আমাকে বলুন। তাহাতেই আমার রুচি, এবং তাহাই আমার বর অর্থাৎ প্রার্থনীয়৪৮। ব্রঙ্গা বলিলেন, বৎস ভরদ্বাজ ! তুমি এতদাশ্রমন্থ মহর্ষি বান্মীকি সদদীপে গমন কর এবং যত্্ বিনয়াদি সহকারে প্রার্থনা কর। তিনি বে অনিন্দিত বীমাধবণ প্রস্তুত করিতেছেন তাহারই শ্রবণে জনগণ অনাদি অবিদ্যা মোহ উত্তীর্ণ হইতে পারিবে জনগণ যেমন মহাঁগুণশালী রাম- সেতুর * দ্বারা মহাপাঁপমগর উত্তীর্ণ হইতে পারে সেইন্ধপ বান্ধীকিমহর্ষিকৃত উত্তর রামায়ণ শ্রবণেও ছুস্তর মোহমহাঁসাগর অর্থাৎ এই সংসার সমুদ্র অনায়াসে উত্তীর্ণ হইতে পারিবেন।১০। বান্দীকি কহিলেন,পরমেঠা ভরদাঁজকে এইরূপ বলিয়া, পরে তিনি তাঁহাকে সমভিবা।হারে লইয়া আমার আশ্রমে আগমন করিলেন১১। আমি সর্ব- ভূতহিতৈষী দেবাদিদেব মহাসত্ব পরমেঠীকে দর্শন করিবামাত্র সন্বর গাত্রোখান পাদ্যপ্রদানাদরির দ্বারা তাহার সপর্ষ্যা করিলাম। অনন্তর সেই মহাসনব পিতায়হ আমাকে সর্ধজীবের হিতার্থে বলিতে লাগিলেন১২।

» হে মুণিবর ! পবিব রামচরিতবর্ণন রূপ উত্তর রামায়ণ প্রস্তত করিতে যি তুমি পরিশ্রান্ত হই়াছ তথাপি সমাণ্তি না হওয়া পর্যন্ত ইহা পরিত্যাগ করিও না। যাবৎ না এই অনিন্দিত রা*্চরিতপূর্ণ গ্রন্থ সমাপ্ত হয় তাবৎ এতং গ্রন্ি বত্তবান্‌ হও১০। মহর্ষে! বেমন গীন্রগামী পোত দ্বার ছর্লজ্বা মহাসাগর অনারাসে উত্তীর্ণ হওয়া যাঁর সেইরূপ লোক সকল এই উত্তর রামায়- পেন দ্বারা সংসার সম্কট অনায়াসে উত্তীর্ণ হইতে পারিবে৯৪। সেই জন্যই আমার অনুরোধ_তুমি লোকহিতসাধনার্থ এই মহৎশান্ত্র রামায়ণ শীঘ্ত প্রকাশ কর। আমি ইহা বলিবার নিখিত্তই তোযার নিকট আগমন করিয়াছি

পপ পপ পাপা পিসী পপ পিসীর ৬৪ পা পাপপী পাপী পপ শিপ সস সপ পল

* র[মকৃত সেতুঁ-যাহা সেতুবন্ধ রামেশ্বর নামে প্রসিদ্ধ। শাস্ত্রে আছে, জীব রামসেতু দর্শণে সর্বপাপমুক্ত হয। যেহেতু রামসেতু সব্বপাপবিষে।চন, সেই হেতু তাহা, মহা গুশ|লী বলিয়া কীিত হয়।

€।

হসর্ণ বৈরাগ্য প্রকরণ ১১.

হে রাজন! যেরূপ সলিলরাশি হইতে উত্তাল তরঙ্গ উতিত্ব হইয়া তক্ষণাৎ বিলীন হইয়া যাঁয়, সেইরূপ, ভগবান্‌ কমলযোনি প্র কথা রলিম্া? মুহুর্তেই আমার এই পবিত্র আশ্রম হইতে অন্তহিত হইলেন১৬। » ব্ধা জাগমন করিলে আমি সাতিশয় বিশ্ময়ীপন্ন হইয়াছিলাম, স্থতরাঁং খআমি ততকালে তদীয় বাক্যের মর্ম গ্রহণ করিতে সমর্থ হই নাই। অনন্তর (তিনি গমন করিলে, আমি চিত্তের স্থিরতা লাভ করিরা ভরদাঁজকে জিজ্ঞাসা বলাম,১৭ ভরদ্বাজ! ভগ্বাঁন্‌ পিতামহ ব্রন্গা আমাকে কি বঁলতে- পরলেন তাহা! তুমি আমায় শীপ্র বল। আমি তাহার বাক্যের মন গ্রহণ চরিতে পারি নাই১৮। অনন্তর তত্শ্রবণে ভরদ্বাজ বান্পীকি মুনিকে বলিলেন, ! ভগবান্‌ ব্রহ্ম! বলিতেছিলেন “আপনি পুর্বে যেরূপ চিত্তশুদ্ধিজনক মায়ণ প্রস্তত করিফাছেন ; এক্ষণে সেইরূপ সর্ধলোকহিতার্থ সংসার সমুদ্রের কাম্বরূপ উত্তর রামায়ণ প্রস্তত করুন”১৯ | ভগবন্‌! বিষয়ে আমারও না__মহামনা রাম, ভরত, লক্ষণ, শ্রত্ন, যশস্থিনী সীতা ধীসম্পন্ন ্লামান্থ্বারিগণ এই সংসারসঙ্কটে যেরূপ ব্যবহার করিয়াছিলেন তাহা বণন করুন। তাহাঁরা,কি অজ্ঞ জীবের ন্তাত্র শোকসমাচ্ছন্ন হইয়া কালাতিপাত করিয়াছিলেন? কি মুক্তজীবের ন্তায় অসঙ্গ ছিলেন২।২১? কিরূপে তাহারা ছুঃখ পথ অতিক্রম করিয়াছিলেন তাহা বিশদরূপে বলুন, উপদেশ করুন, আমি ও,সংসারস্থ অন্য মানব, আমরা সকলেই সেইরূপ করিব, করিয়া সংসার স্কট হইতে ত্রাণ লাভ করিব২২ | মহারাজ! আমি মহর্ষি ভরদ্বাজ কর্ভৃক সাদরে “বলুন” এইরূপ অভিহিত ইয়া ভগবান্‌ ব্রঙ্গার আদেশানুসারে তাহাকে বলিতে প্রবৃত্ত হইলাম২৩। 'বলিলামঞ্টবস ভরদ্বাঞ্ত ! তুমি যাহা জিজ্ঞাসা করিলে তাহা আমি তোমার" নিকট সবিস্তর বর্ণন করি, অবহিত হইয়া শ্রবণ কর"? অবণ করিলে তোমার দয় মোহ দুরীভূত মনোবৃত্তি নির্মল হইবে২। হে প্রাজ্ঞ ভরদ্বাজ ! রাজীবলোচন রাম সকল বিষয়ে অনাসক্তচিত্ত থাকিয়া যেরূপে লোক যাত্রা নির্বাহ করতঃ সুখী হইয়াছিলেন তুমিও সেইরূপে লোকব্যবহার সম্পন্ন কর, করিলে তৃমিও স্থণী হইতে পারিবে২ৎ লক্ষ্মণ, ভরত, শক্রদ্», কৌশল্যা, হল, বদ মহারাজ দশনথ২৬ এবং রামসথা কৃতাস্ত্র অবিরোধ, পুরোহিত 'বশিষ্ঠ বামদেব, ইহারা সকলেই পরমজ্জানী ছিলেন রামচন্দ্রের২৭ ধৃষ্টি, জয়ন্ত, ভাস, সত্য অর্থাৎ সত্য বক্তা বিজয়, বিভীষণ, স্থুষেণ, হনুমান

/

' ১২ বাশিষ্ঠমহারামায়ণ। ২সর্

সগ্রীবামাত্য ইন্দ্রজিৎ, এই আট মন্ত্রী, ইহারাঁও মহামনা, জিতেজ্ডিয় সমদর্শী,

পবিষয়'সক্তিশৃন্ঠ, প্রারব্বক্ষযপ্রতীক্ষ জীবনুক্ত ছিলেন২৮২৯। হে বৎস ভরদ্বাজ! ইহা! যেরূপে যে ভাবে শত্যুক্ত স্বৃত্যুক্ত হোম দার্ন প্রভৃতি কর্ম আদান প্রদান প্রভৃতি লৌকিক সধ্যবহার ইষ্টচিন্তন প্রভৃতি কিছিত কর্মের অনুষ্ঠান কবিতেন তুমিও যদি সেইরূপ করিতে পার তাহা হইলে তুমিও অনায়াসে সংসারসঙ্কট মুক্ত হইতে পারিবে*। অধিক কি বলিব, উতকৃষ্ট- জ্ঞানবলসম্পন্ন ব্যক্তি অপার সংসারসমুদ্রে পতিত থাকিলেও এই পরমযোগ লাভ ক্লরিয়া ইষ্টবিয়োগদিজনিত শোক, ছুংখ, দৈন্তা, সমুদয় সঙ্কট হইতে পরিত্রাণ পান নিত্যতৃপু হনত১।

দ্বিতীয় সঙ্গ সমাধ।

তৃতীয় নর্গ।

সপ কা

অনস্তর ভরদ্বাজ জিজ্ঞ।সা করিলেন, হে ব্রহ্ন্! আপনি রামকথা অব- লম্বন করিয়া বথাক্রমে জীবন্ুক্তের স্থিতি অর্থাৎ লক্ষণ লৌকিক বৈদিক ব্যবহার বর্ণন করুন্‌ তাহা শ্রবণ করিরা আমি পরম সুখ লাভ করিব১। বান্ীকি বলিলেন, সাঁধু ভরদ্বাজ ! সাধু !-অবহিতচিন্তে শ্রবণ ক্ধ। যদ্রপ ভ্রম বশতঃ বূপহীন আকাশে নীল গীত প্রভৃতি বর্ণ প্রতিভাঁস গ্রকাঁশ পায়, সেইরূপ, অজ্ঞান বশতঃ পবরন্ধে জগত ভ্রম প্রকাশ পাইতেছে। হেসধো! সেই কারণে অমর মনে হয় ঘে, এই মিথা| জগত যাহাতে পুনর্ধার স্থিতি- পদ্াক্ঢ না হয় সেইরূপ ভাবে ইহার বিম্মরণ উত্পাদন করাই মঙ্গলাবহ বা ' শ্রেয়স্কর* |

ভরদ্বাজ ! দৃশ্ঠমাতই ভ্রান্তিকলিত সুতবীং মিথা1। এই জ্ঞান যত দিন না দৃঢ় হররূপে উৎপন্ন হইবে তত দিন কোনও প্রকারে আত্মজ্ঞান লাভ করিতে সমর্থ হইবে না। অতএব, যাহাতে অবিসন্গাদী আম্মজ্ঞান লাভ করিতে পার ঘভাহার উপায় অন্বেষণ কর” বৎস! তাঁদুশ তন্বজ্ঞান লাভের অসস্তাবনা নাই, টা তুযুত সম্ভীবনা আছে। কারণ, আমি তছৃদ্দেশেই এই শাস্ত্র প্রস্তত করিয়াছি। যদি তুমি ইহা! ভক্তি শ্রদ্ধাদি সহকারে শ্রবণ কর, তাহা হইলে অবশ্তই তোমার তত্বজ্ঞান উপস্থিত হইবে, অন্যথা কোনও কালে ভ্রমসংশোধন হইবে না, শ্রম সংশোধন না হইলেও তন্বজ্ঞান হইবে নাঃ। হে অনঘ! এই জগৎ বস্ততঃ মিথ্যা ফ্লুথচ ইহা ভ্রম বশতঃ আকাশবর্পণের য় আপাততঃ সত্যবৎ প্রতীক মান হইতেছে কিন্ত যখন তুমি মোক্ষ শান্ত্বের অূডিলাচনায় প্রবৃত্ত হইবে তখন নিশ্চয়ই বুঝিতে পারিবে যে, জগত কিছুই নহে অধিকন্ত সম্পূর্ণ মিথ্যা। হে ভরদ্বাজ! দৃশ্ত নাই। অর্থাৎ দৃষ্ত মায়াবীর মাথার ন্যায় মিথ্যা। ঘিনি ইহার দ্রষ্টা ভিনিই সত্য। এই সভা আম্মাই সর্বত্র বিরাজমান প্রকাশমান। চৈতন্ত' স্বৰপ আম্মা ব্যতীত যে কিছু-_সমন্তই জড় সুতরাং স্বাম্মকন্পিত মিথ্যা। এইরূপ জ্ঞান দ্বারা মন হইতে দৃশ্ঠবস্তর মার্জন অর্থাৎ অন্তিত্ব পরিহার করিতে পারিলেই পরমা নির্বৃতি (নির্বাণ নামক মোক্ষ) লাভ করিতে পরিবে১। অন্তথ! অক্ঞানান্ধ হইয়! শত কল্প পর্য্যস্ত শান্ত্রপ গর্ভে নিপতিত

১৪ বাশিষ্ঠ মহার।মারণ। ত্দর্গ

লুঠিত,হইলেও শ্বতঃসিদ্ধা পরমা নির্বতি অর্থা যাহা তরহ্নির্কুণৎনাডম খ্যাত তাহা হাত করিতে পারিবে না। অধিক কি বলিব, তাহার সম্ভাবনা পর্য্স্তও

নই বলির অবধারণ করিবে [ বস্তৃতঃই অধ্যাত্মশান্ত্রের আলোচন! ও.

উক্তরূপে দৃষ্ত মার্জন কর! ব্যতীত ভ্রমপূর্ণ অনাত্মশান্ত্রের অনাত্বুশাস্ত্রোক্ত জ্ঞানের দ্বারা বিশোকাত্মক নির্বাণ পদ লাভ করা যায় না।]

হে রন্ধন! নিঃশেধিতরূপে বাসনাপ্রবাহের পরিত্যাগ অর্থাৎ মুলোচ্ছেদ হইলে থে মোক্ষ হয় সেই মোক্ষই মুখ্য মোক্ষ * এবং সেই ক্রমই উত্তম ক্রম”। অর্থাৎ এ্রতিদিন পরাৎ্পর ভগবানের স্মরণ উপাসনাদির দ্বারা চিত্ত নির্মল হইলে অল্পে অল্পে বাসন! জাল ক্ষয় প্রাপ্ত হয়, বাসনা ক্ষয় হইলেই জন্মমরণাপি- রূপ সংসার ছিন্নমূল হইয়া বিনাশ প্রাপ্ত হয়। যেমন শীতাত্যয়ে হিমরাশি দ্রবীভূত হয়, সেইরূপ, বাসনাক্ষয়ে বাসনাপুঞ্জের অধিষ্ঠারভূত মনও বিগলিত হইয়। যাঁয়৯। সুতরাং বাসন! হইতে উৎপন্ন বাসনার দ্বারা আবদ্ধ বদ্ধিত এই পাঞ্চভৌতিক স্ুলদেহ বাসনাশৃন্ত হওয়ায় অভাব প্রাপ্তের ন্যায় অবস্থান করে ১*। বাসন! ছুই প্রকার। শুদ্ধা মলিনা মলিনা বাসনা জন্মের হেতু শুদ্ধা বাসনা জন্মবিনাশিনী১১। যাহা নিরবচ্ছিন্ন অজ্ঞানময় নিরতিশয় অহঙ্কারশানিনী, 1 পণ্ডিতেরা সেই পুনর্জন্মবিধারিনী বাঁসনাকে মলিন! বলিয়া নির্দেশ 'করিয়াছেন১২। যাহা দ্রষ্টবীজের গ্তায় অস্কুরোত, প।দিকাশক্তিবিহীন হইয়া থাঁকে অর্থাৎ যাঁহা পুনর্জন্মের উৎপাদক কারণ না হইয়া কেবল মাত্র প্রারনবশতঃ দেহাদি অবলম্বন করিয়া অবস্থিতি ঝরে অর্থাৎ দেহ ধারণ মাত্রে পর্যবসিত হয় তাহা শুদ্ধ বাসন! নামে বিখ্যাতি১৩। এই পুনর্্ন্মনিবাঁরণী শুদ্ধা বাসন! জীবন্ত, পুরুষ দরিগের দেহে চক্রত্রমের স্তায় মৃত সংস্কার রূপে অবস্থান কনে ১*। ধীাহারা শুদ্ধবাসনাবিশিষ্ঠ, ক্াহারাই

জ্ঞাতভ্রেয় হন, হইয়া অনর্থভাজন পুনর্জন্ম জয় করিয়া জীবনুক্ত পদ লাভ . করে। সেইজন্য, তাহারাই প্রক্কতি বুদ্ধিমান্‌ বলিয়া! গণ্য১৫| [ইহারা কৃত.

কর্মের ফল উত্তর কালে ভোগ করেন না। এই জন্মেই সে সকল ভোগ- দ্বারা ক্ষয় করিয়া থাকেন। ]

পাশ শী টি শশা

* বাসনা-মিথ্যা জ্ঞান বা কর্খের সংস্কার। এই বামনাই ভবিষাৎ জন্মাদির কারন হব

তাহা অজানরূপ' ক্ষেত্রে অস্কুরিত হয়। পুনঃ পুনঃ বিষয়ানুস্জান তাহার পোষণ বর্ধন করে এবং রাগ দ্বেষাদি তাহার সহ|য়তা করে। তাহার রোপণ কর্তা অহঙ্কার

1 সাঁযুজ্য, ারপা, সালোক্য, সকল মুক্তি গৌণ। অর্থাৎ পরমমুক্তির কিঞ্িৎ গণ বা সাদৃশ্ত মাছে বলিয়া সকল মুক্তি নামে পরিভ।ধিত হইয়াছে |

সর্প বৈরাগ্য প্রকরণ ।' ১৫

বাক্সীকি বলিলেন, হে ভরদ্বাজ ! মহামতি রাঁম যে প্রকার সাধনার দ্বারা 'জীবনুক্তি পদ্দ লাভ করিয়াছিলেন আমি জীবের জরামরণশাস্তির নিমিত্ত (তোমার নিকট সবিস্তরে তাহ কীর্তন করিতেছি, শ্রবণ কর পরম মঙ্গবা- 'দায়িনী র্মকথা শ্রবণ করিলে তুমি সমস্ত তত্ব অবগত হইতে পারিবে১৬১৭| বৎস ভরদ্বাজ ! বরাঁজীবলোচন রাম বিদ্যাগৃহ হইতে বিনির্গত হইয়। কিছু- দিন বিবিধ লীলার দ্বারা অকুতোভভ়ে স্বীয়গৃহে অবস্থিতি করতঃ অতিবাহিত মুরিলেন। কিয়ংকাঁল অতীত হইলে যখন রাম পৃথিবী পত্িপালনের ভার নী, হণ করিলেন তখন প্রজা দিগের রোগ, শোক, ভয়, অকালমর৭, প্রভাতি মিমন্তই তিরোহিত হইল১৮১৯। এই অবসরে তাহার চিত্ত তীর্থ পুণ্যাশ্রম র্শন করিবার নিমিত্ত সাতিশয় উতকণ্ঠিত হইল২*। অসীমগুণ পবিত্র তীথাদি- র্শনার্থ রাঘব চিস্তাপরায়ণ হইয়া আগ্রহ সহকারে হংস যেমন অভিনব পদ্ম সাশ্রয় করে, সেইরূপ, পিতার নখকেশরবিরাঁজিত পাদপদ্বয্গল অবলম্বন লেন অর্থাৎ তদীয় পাদপদ্ম গ্রহণ করিলেন২১। কহিলেন, পিতঃ ! তীর্থ, [দেবালধ, বন, এবং আয়তনাদি দর্শন করিব!র নিমিত্ত আমার মন সাতিশয় ভিংকিত হইয়াছে২২। হে নাথ! হে প্রার্থনাপুরক! আপনি কৃপা করিয়া “আমার এই গুথম প্রার্থনা পূর্ণ করুন। পৃথিবীতে এমন কেহই নাই ষে সাপনার নিকট প্রার্থন৷ করিয়া অক্কতার্থ বা অপূুর্ণকাম হইয়াছে২৩। অনন্তর রাজা দশরথ রাম কর্তৃক কথিতপ্রকারে প্রা্থিত হইয়া শুগ |বান্‌ বি দেবের সহিত মন্ত্রণা করতঃ প্রথম প্রার্থী রামকে তীর্ঘদরশনার্থ অন্থমন্তি দান করিলেন২*। গুণশালী রাম পিতার অনুমতি গ্রহণ করত: প্রথমে মঙ্গললঙ্কৃতবপু দ্বিজগণ কর্ঠুক ক্ুতস্স্ত্যযন হইলেন। পরে মাতৃগণচরণে অভ্ভি- বাদন কণ্রলেন। অনন্তর তাহাদিগের দ্বার! আলিঞ্গিত হইয়া! লক্ষ, শত্রুগ্ন শিঠ কর্তৃক নিয়োজিত শাস্ত্জ্ঞ দ্বিজগণ কতিপয় শাস্তম্বভাঁব রাজপুক্র ভব্যাহারে শুভনক্ষত্রসম্পন্ন দিবসে স্বগ্ৃহ হইতে তীর্থ দর্শনার্থ বহিগ্গত হইলেন+ৎ২৭। পুরুবাসিগণ তার মঙ্গলার্থ নানাবিধ বাদ্যবাদন করিতে লাগিল, নগরবাঁসিনী র্মণীগণ চঞ্চল নয়নে মুহুমু তাহার প্রতি দৃষ্টিপান্ কমলকর দ্বারা তাহার শরীরে লাজ বর্ষণ করিতে লাগিল মহাপুরুষ রাঁম লাজবর্ষণে হিমকণাসংলগ্ন হিমাচলের স্তায় পরম শোভা ধারণ করিলেন *৮।২৯। তীর্ঘযাত্রী রাম প্রথমতঃ দানাদির দ্বারা বিপ্রগণকে বিদায় করিলেন ; পরে প্রজাগণের আশীর্বাদ গ্রহণ পূর্বক চতুপ্দিক অবলোকন করিতে কশ্সিতি

2৬ - বাশিষ্ঠমহারামায়ণ। শুসর্গ

বনদর্শনোতস্কচিন্তে গমন করিতে লাগিলেনগ* | সর্ধমানয়িত! রম বর্ণিত 'গ্রাকালে স্বীয় রাজধানী কোশল হইতে আরম্ভ করিয়া শ্নান, দান, ধান, এবং ত্বপোনুষ্ঠান পূর্বক ক্রমে ক্রমে মন্দাকিনী, কালিন্দী, সরস্বতী, শতদ্র, চ্দ্রভাগা, ইরাবতী, বেণী, কৃষ্ণবেণী, নির্বিন্ধ্, সরঘূ, চর্ণুতী, বিতস্তা, বিপাশা প্রভৃতি নদী প্রধ্াগ, নৈমিষ, ধর্মারণ্য, গয়া, বারাণসী, প্রীশৈল, কেদাঁর, পুষ্কর, মানস-সরোবর, ক্রমপ্রাপ্তসরোবর (হ্রদবিশেষ ), উত্তরমানস সরোবর, হয়গ্রীব- তীর্থ, বিন্ধ্যাচল, সাগর, জালামুখী, মহাতীর্থ ইন্দরছ্যন়সরোবর, বহু হদ, কাণ্তিকেয় স্বামীরদহীর্থ শালগ্রাম তীর্থ প্রভৃতি পুণ্যতীর্ঘথ সকল এবং হরিহরের চতুষষ্টি স্থান; বিবিধ আশ্চর্য্য দেশ, পৃথিবীর চতুর্দিকস্থ সমুদ্রের চতুঃপার্শবর্তী তীর্থ নিচয় বিদ্ধ, হরকুপ্ণ এবং স্থমেরু, কৈলাস, হিমালয়, মলয়, উদয়, ততস্ত স্ববেল গন্ধমাদন, এই অষ্ট কুলাচল রাজর্ষি, ব্রহ্গর্ষি, দেবগণের অন্যান্য ব্রাহ্মণগণের সমুদায় পুণ্যাশ্রম ভ্রাতদ্বয়ের সহিত ভূয়োভুয় দর্শন তত্বৎ স্থানের স্থানীয় অনুষ্ঠান করিতে লাগিলেন*১।১। এইরূপে বতসরাধিক কাল অতিবাহিত করিয়া এশর্যযশালী রাম সমস্ত জদ্বুীপ পরিভ্রমণ পূর্বক সমুদয় অবলোকন করিরা দেবগণপুজিত শিবলোকগামী মহাদেবের হ্যায় অমর, কিন্নর মন্ুষ্যগণ কর্তৃক পুজিত হইয়া স্বীয় গৃহে প্রত্যাগমন করিলেনঃ২।

তৃহীয় সগ সমাপ্ত

চতুর্থ সর্গ |

বান্মীকি বলিলেন, ভরদ্বাজ ! অযোধ্যাবাসীরা তীর্থপ্রত্যাগত রামচজ্দ্রকে পুষ্পবর্ষণে আকীর্ণ করিলে তিনি দেবগণবেষ্টিত ইন্ত্রপুত্র জয়স্তের স্তায় অমবা- ্তী তুল্য অদোধ্যাপুরে প্রবেশ করিলেন১। পুরঃ প্রবেশ করিয়া প্রথমতঃ পতৃচরণে প্রণাম করিলেন, পরে যথাযথ বশিষ্ট, ব্রাহ্ষণগণ, এবং কুলবুদ্ধ ভ্রাতৃগণ, হজদগণ মাঁতৃগণকে প্রণাম করিলেন২ | মেহাসক্ত সুহৃদগণ, মাতৃগণ, পিত। ব্রাঙ্গণগণ তাহাকে বার বার চুন্বনালিঙ্গন-ও আশীর্বাদাদি প্রয়োগ করিলে তান অপার আনন্দ অন্থভব করিতে লাগিলেনত। দশরথগৃহে রামদর্শনার্থ সমা- জনগণ রামের মুখে নানা প্রিন্ন কথা শরবণ.করতঃ আনন্দ বিশেষ অনুভব করিতে লাগিল উৎ্মবোৎ্রূচিত্তে ইতভ্ততঃ পরিভ্রমণ করিতে লাগিল" রামেব আগমন জশিত এরূপ উৎসব আট দিন ব্যাপিয়া বিদ্যমান ছিল, এই আট দিম অযৌধ্যানগরী স্থখপ্রমন্ত জনগণের কলকোলাহলে পরিপূর্ণ ছিলৎ। রাঘব এই কাঁল হইতে পরমন্থুখে নিজ ভবনে বস করিতে লাগিলেন এবং ইন্প্ততঃ মে সকল দেশ দেশাচার দেখিনা অ!সিয়্াছিলেন সে সকল রা (নিকট বর্ণন করিয়া সুখে কাল কর্তন করিতে লাগিলেন। একদা র।ম প্রা লে গাত্রোখান করিয়। যথাবিধি সন্ধ্যা বন্দনাদি বৈধ কার্য সমাপন রর সভাস্থ ই্রতুল্য পিতার চরণ দর্শনার্থ গমন করিলেন এই দিন তিনি সভায়, সভ্যজনগণ কর্ভক বিশেষনূপে সম্মানিত বশিষ্ট বঠমদেবাদির সহিত বিবিধ জ্ঞানগর্ভ বাক্যালাগে পরিতুষ্ট হইয়া দিবসের চতুর্থ ভাগ পর্য্যন্ত অবস্থিত থাকিলেনণ।”। অনন্তর পিতার নিকট মুগয়া খাত্রার অন্থুমতি গ্রহণ পুর্ববক্‌ পিতৃসকাশ পরিত্যাগ করিলেন সেই দ্িবসেই তিনি মৃগস্সাভিলাষে সেনা. পরিবৃত হইমা বরাহ মহিষ প্রভৃতি বিবিধ ভীষণ জন্ত সমাকীর্ণ নিবিড় অরণ্যে প্রবেশ পূর্বক মৃগম্নাপ্রবৃন্ত হইলেন* মুগয়াবসানে গৃহে প্রত্যাগত হইয়! নে আহিক কার্ধ্য সমাধা করতঃ স্ুহৃদগণের ভ্রান্বগণের সহিত মিপিতত

ইনা পরমঙ্গখে লদনী ঘাগন ফপিনেম১ | হে অনঘ ভরদাজ ! বম এইপ্জপে

১৮ বাশিষ্ঠ-মহারামায়ণ। সর্গ

কখন মৃগয়। করিয়া কখন বাঁ ত্রাতুগণের সুহৃদগণের সহিত আমোদে রত থাকিয়া সময়াতিপাত করিতে লাগিলেন এবং রাজোপযুক্ত মনোহর খ্যবহার দ্বারা স্বজনগণের চিত্তবৃত্তি দিন দিন স্ুশীতল করিতে লাগিলেন১১।১২।

| চতুর্থ সর্গ সমাপ্ত

পঞ্চম অর্গ |

উর পপি করেতে

বান্ধীকি বলিলেন, ভরঘ্বাজ ! রামের রামের অন্গগত লক্ষণ প্রভৃতির মঃকাল কিঞ্চিৎ ন্যুন ষোড়শ বর্ষ হইয়াছে, ভরত মাঁতামহগৃহে সুখে বাস রিতেছেন, দিকে রাজা দশরথও শান্সাহুসারে রাজ্য পালন করিতের্টছিন১২। মহাপ্রাজ্ঞ রাজা এক্ষণে কেবল রাজ্যপালন করিয়া পরিতুষ্ট নহেন। প্রত্যহই মন্ত্রিগণের সহিত পুন্ুগণের বিবাহ্সন্ন্ধীয় মন্ত্রণাঁয় প্রবৃত্ত আছেনত। দিকে রাম তীর্থ যাত্রা হইতে প্রত্যাগত হইয়া নিজ গৃহে অবস্থান করতঃ দিন দিন কশ হইতে লাগিলেন * যেমন শরথকাল আগত হইলে নির্শলজল সরোবর দিন দিন শুষ্ক হইতে থাকে, কুমার রামচন্দ্র সেইরূপ দ্রিন দিন শোষ প্রাপ্ত হইতে লাঁগিলেন্ঃ যক্্রপ ভ্রমরপুংক্তিযুক্ত প্রফুল্ল শ্বেতারবিন্দ চরমে পাঙুবর্ণ ধারণ করে, কুমার রামচন্রের আয়তলোচনান্বিত মুখপন্ম সেইরূপ পা্গুবর্ণ হইতে লাগিলৎ। তিনি পদ্মাসনে আসীন হইয়। করতলে কপোঁলবিন্যাস করতঃ চিগ্তারতচিত্তে প্রায়ই নিশ্চেষ্টের হ্তায় থাকেন; কেহ কিছু জিজ্ঞাসা করিলে

পপি

মং শুদ্ধসত্বভাবে দীর্ঘকাল তীর্থ পর্যটন করিলে যজ্ঞ দান তপস্ত। শ্বাধ্যায়াদির ফল 'পাঁওয়া যায়। অর্থাৎ তীর্থ পধ্যটনের দ্বারাও চিত্তশুদ্ধি বিষয়বৈরাগ্য হইয়! থাকে। শাস্ত্াস্তরে লিখিত আছে “এতে ভোৌমা ম্ময় যক্াস্তীর্ঘরূপেণ নির্দিতাঃ |” রাম বিশিষ্টাধিকারী, বিশেষতঃ শুদ্ধন্বভাট্ব এক বৎসব তীর্থসেবা করিয়াছেন; তাই তংপ্রভাবে আজ্‌ তাহার বিবেকবুদ্ধি $ বৈরাগ্য জন্ষিয়াছে। বৈরাগ্য ছুই প্রকারে উদ্দিত হইয়া খাকেশ। কাহার কাহার তুক্তবৈরাগ্য কাহার কাহার অভুক্তবৈরাগ্য হয় বিষয় ভোগ করিয়া পরে তাহার অসারতা নিচে তৎ্পরিত্যাগে যে যত্বু জন্মে, শাস্ত্রে তাহাকে ভূক্তবৈরাগ্য 'বলে। শা দোষের বর্ণনা শুনিয়। ওবিষয় ভোগের ছুর্দশ। দেখিয়া! শুনিয়া অনুভব করিয়! যে বিষয়বিমুখ হইবার চেষ্টা জন্মে, সে চেষ্টা অভুক্তবৈরাগ্য নামের নামী যুগয়! হইতে ফিরিয়। আসিয়াই রামের বৈষয়িক ব্যাপারে অসানতা প্রভীত হইয়াছিল; সেজন্য তাহার উপস্থিত বৈরাগ্যকে ভুক্তবৈরাগ্য বলিতেও পাব। তীর্থ পর্যটনে সব্বগুদ্ধি হইলে বিবেকবুদ্ধি জন্মে এবং ভোগ করিতে কবিতে কদাচিৎ কাহাব কাহাৰ ভুক্তবৈরাগ্য উৎপন্ন হইয়া থাকে; তাহ! দেখাইবার নিমিত্ত এখানে নেব তীর্থ ব্রমণ সৃগষ। বর্ণিত হইয়াছে,।

স্পন্লিল্পাপীম্পাশীশশাপা লী শা

রব

২০ বাশিষ্ঠ-মহারাঁমায়ণ। ৫সাঁ,

উত্তর প্রদান করেন না চিত্রলিখিতের ন্যায় নির্বাক থাকেন যতই দিন | নাইতে লাগিল ততই আঁট অধিক চিন্তাযুক্ত, ছুঃখিত, অত্যন্ত ছুর্ঘনা রশ হইতে [গিলেন»।"। গরিজনবর্গের নিরতিশয় অন্থুরোধে কেবল মা সন্ধাবন্দনাদি নিত্য কণ্ম সদাচার প্রতিপালন করেন, অন্য কিছু করেন না”। গুণগণাকর রামচন্দ্রের তাদৃণী দশা অবলোকন করিয়া লক্ষণ শক্রদ্, ' সেইবূপ অবস্থাপন্ন হইলেন; এবং মহীপাল দশরথ তৎপত্রীগণ পক্রদিগকে' সাতিশর চিন্তাপরাঁধণ কৃশাঙ্গ দেখিয়া চিন্তাসাগরে নিমগ্ন হইলেন৯1১০। একদা বাঁজা দশরথ শ্রীমান্‌ রামচন্দ্রকে ক্রোড়ে লইয়া ক্িপ্ধবাক্যে পুনঃপুনঃ জিচ্ছাসা করিতে লাগিলেন, বস ! তোমার এরূপ গাঢ় চিন্তার কারণ কি? রাম পিতার তাদৃশ বাক্য শ্রৰণে প্রথমতঃ কোনও কথা বলিলেন না১১। অনন্তর বলিলেন, “পিতঃ! আমার কিছু মাত্র ছঃখ হয় নাই ।” পিতৃক্রোড়- গত রাঙ্গীবলে।চন রাম মাত্র কথা বলিস্বা মৌনাবলম্বন করিলেন১২। তরনন্তর রাজা দশর্থ কার্যাজ্ঞ বাগ্মী বশিষ্ঠ খণিকে জিজ্ঞাসা করিলেন, রো! রামচন্দ্র কি নিমিত্ত থেদাদিত হইয়াছেন১০?৮ মহর্ষি বশিষ্ঠ ক্ষণ- কাল টিস্তা করিনা গ্রতান্তর করিলেন, রাজন্! দুঃখিত হইবেন না। রাম- চক্রের খেদের বিশেষ কারণ আছে১৪। ধার পুকষেরা অন্ন কারণে হ্্ধ, বিষাদ বাঁ কোপ প্রভৃতির বশ্ত হন না। দেখুন, পৃথিখ্যাদি মহাভূত সক ্্টিকাল ব্যতীত অন্য কালে আত্যপ্তিক বিকার প্রাপ্ত হয না১ঃ।

পঞ্চম মগ মমাত্ু।

বষ্ঠ সর্গ

স্ব বা” ০০টি

বাদ্দীকি বলিলেন, ভরদীজ ! মুনিনাথ বশি্ পরমখেদান্বিত লন্দেহ- নিমগ্ন রাজা দশরথকে এরূপ কহিলে তিনি মৌনাবলম্বন করিলেন+ণ রাজা দশরথ কিয়তক্ষণের নিমিত্ত মৌনী আছেন এবং রাজমহিষীগণ সাতিশয় কাতরা ছইয়! রামচেষ্টাবিষষে সর্বতোভাবে সাবধান আছেন, এমন সময়ে লোকবিখ্যাত মহাতেজা বিশ্বামিত্র*মায়াবীর্ধ্যবলোন্মত্ত যজ্ঞবিদ্রকারী রাক্ষদগণ'ক্তৃক প্রপী- ডিত নির্বিগ্ে বজ্ত সম্পাদনে অসমর্থ হওয়াতে বিদ্বকারী নিশাচর গণের বিনাশসাধনপুর্কক যক্ঞসম্পাদন করা কর্তব্য বিবেচনায় ব্বাীজদর্শনাভিলাষে অযোধানগরীতে আগমন করিলেন২।৬। মৃহাতেজা বিশ্বামিত্র রাজদ্বারে উপনীত হইব দ্বারপাল দিগকে বলিলেন, দ্বারপালগণ ! তোমরা শীঘ্ গিয়া র্টাকে বল, ্ুশিকবংশীয় গাধিরাজের পুভ্র বিশ্বামিত্রনামা খষি রাজদর্শনা- ভিলাষে আগমন করিয়াছেন দ্বারপালগণ মহ্ষির বাক্য শ্রবণ মাত্রেই শ্ীপভয়ে ভীত হ্ইয়া অনতিবিলম্বে রাজসমীপে গমন করিল রাঁজস্তমগ্ুল- ম্ডিত সিংহাসনোবিষ্ট মহারাজ দশরথকে সংবাদ প্রদান করিল। সানুনয় বাক্যে কহিল, তরুণাদিত্যসন্লিভ মহাতেজস্বী অরুণবর্ণজটাজুটমণ্ডতিত পরম- রূপবান্‌ বিশ্বীমিত্রনামক এক মহাপুরুষ দ্বারদেশে দণ্ডায়মান আছেন তদীয়ু তেজঃ খ্বীরদেশ অবধি উর্দস্থ পতাকা পর্য্যন্ত হুস্তী, অশ্ব, আমুধ প্রভৃতি সমস্ত বস্ত্র কাঞ্চনবর্ণের স্ায় সমুজ্জল করিয়াছে”।১৬। নৃপসত্ম দশরথ যষ্টি- হস্ত দ্বারপাঁলের নিকট মহর্ষি বিশ্বামিত্রের আগমন বৃত্তান্ত শ্রবণ করিয়া তৎক্ষণাৎ স্বর্ণ সিংহাসন ত্যাগ করিয়া যেখানে মহর্ষি দণ্ডায়মান ছিলেন মন্ত্রী সামস্তগণ সহ সত্বর পদসঞ্চারে তথায় উপনীত হইলেন। দেখিলেন, ক্ষত্র- (তেজ ব্রহ্মতেজ উভয় তেজের আধার মুনিশার্দ,ল বিশ্বামিত্র দ্ধারদেশে ভূমিতলে দণ্ডারমান আছেন তাহাকে দেখিলে বোধ হয়, যেন স্ুর্যদেব কোন ' অনির্দোম্ত কারণে অবনীতলে অবতীর্ন হইয়াছেন১৪।৯৭। বয়োধিক্য হেতু তাহার . €কণ পক্ক, দেহ তপঃস্বতাবে বক্ষ, তাহার স্বন্ধদেশ জটায় আঁবুত। ইহাকে

21১3604

«২ বাশিষ্ঠ'মহারামায়ণ। সর্গ

দেখিবামাত্র সন্ধ্যাকালীন অরুণবর্ণ মেঘে সমূজ্জল সুরঞ্জিত গিরিশিখি বলিয়া 'ঁম জঘ্মে১৮। মূর্তি কমনীয়, তেজঃপ্রভাবে ছুরদর্শ অধৃষ্য, প্রগল্ভদ্যোতী,, অপ্রমত্ত, বিনয়সম্পন্ন, বলিষ্ঠ হষ্পুষ্ট১৯। ইহাকে দেখিলে চক্ষু মন পরিতুঈ হয়, ভয়ের সঞ্চারও হয়। মুখমগুল প্রসন্নগন্ভীর, অব্যাকুল তেজঃূর্ণ। তেজের প্রভায় সন্ুস্থ পদার্থ মাত্রেই রঞ্জিত হইতেছে। তীহার পরমায়ু অতি দীর্ঘ, ব্রান্মণ্য স্থির, হস্তে চিরপরিগৃহীত কমগুলু, চিত্ত স্নিগ্ধ স্ুপ্রসন্ন৭২১। তাহার হৃদয় করুণাপরিপূর্ণ; সেই হেতু তাহার সম্ভাষণাদিও সুমিষ্ট এবং হর লীক্ষণও অমৃততুল্য। তিনি যে দিকে নেত্র পরিচালন করেন তদ্দিকস্থ গ্রজপুঞ্ধ যেন অমৃত রসে সিক্ত হয়ং২। তাহার স্বন্ধে উপযুক্ত যজ্ঞোপবীত, যুগল উন্নত দেহ্যট্টি ধবললোমশোভী। দর্শকগণ ইহাকে দেখিবা মাত্র 1বন্মরাবিষ্ট হন২৩। |

তৃপাল দশরথ পূর্বেই বিনয়াবনত হইয়াছিলেন, এক্ষণে দূর হইতে এবসিধ মহর্ষিকে সন্দশন করিয়া বিবিধমণিবিরাজিত কিরীটপরিশোভিত মস্তক ভূতলে অবনত করিয়া প্রণাম করিলেন২* এবং মহর্ষিও হ্ধ্যসদৃশ তেজস্বী মহেন্দ্র সদৃশ মহারাজ দশরথকে সুমধুর সম্ভাষণ আশীর্বাদ করিলেন২৫।, পরে সমাদর প্রাপ্ত বণিষ্গ্রমুখ দ্বিজাতিগণ তীহাকে স্বাগত প্রশ্ন, তৎপরে তাহার বথাবিবি সপর্ধ্যা করিলেন২৬। এই অবসরে রাজা দশরথ বলিলেন, “হে সাধে ! যেরূপ'কমলিনীনায়ক স্বীয় গ্রভ বিস্তার দ্বারা কমলবন সমুদ্ভাসিত করেন, জেইরূপ, আমরা আঁজ আপনার অসন্তাবনীয় আগমনে উজ্জল মূর্তি দর্শনে পরম প্রফপ্ন সাতিশয় অন্ুগৃহীত হইয়াছ্িং৭ 1 হে মুনে! অদা আমরা ভবদীয়দর্শনলাভে হাঁস, ৃধি বিনাঁশ রহিত অক্ষয় পরমানন্দ প্রাপ্ত হইলাম২৮। হে মুনিবর! আঁজ্যখন আমি আপনার আগমনের 'লক্ষাতৃত হ্ইয়াছি ; তখন নিশ্চয়ই আজি ইহ জগতে ধন্'ও ধার্সিক মধ্যে গণনীয়২৯1” এইরূপ গ্রীতিসন্তাষণ কথোপকথন সমাপ্ত হইলে রাজা দশরথ, অস্ঠান্তি রাজগণ মহ্র্ষিগণ সভাপ্রবেশপূর্বক স্ব স্ব আসন সমীপে গমন করিলেন” রাজ! দশরথ মহর্ষিকে সাঁতিশয় তপঃশোভাসম্পন্ন দেখিয়া ভয় হর্ষের সহিত অর্থ্য প্রদান করিলেন৩১। মহর্ষিও রাঁজদত্ত অর্থ্য প্রতিগ্রহ করিয়া প্রদক্ষিণ কারী রাজার সমাদর প্রশংসা করিলেনত২। মহর্ষি মহারাজ দশরথ কর্তৃক কথিত প্রকারে সংকৃত হইয়া স্ুপ্রসন্ন চিত্তে তাহাকে শারীরিক বৈষয়িক সর্বপ্রকার কুশল জিজ্ঞাসা করিতে লাগিলেন১।

সর্গ বৈরাগ্যপ্রকরণ। ২৯

অন্ধন্তব, মুনিপুঙ্গব বিশ্বামিত্র মহর্ষি বশিষ্ঠের সহিত সমবেত হইয়া তাহার যথাযোগ্য সমাদর কুশল জিজ্ঞাসাদি করিলেন১* | তাহারা কথিত গ্াকাশ্র কিঞ্চিংকাল মিলিত হইয়া সম্ভাষণাদ্দি করিলেন, অনন্তর তাহারা সকলেই স্ব স্ আসুনে উপবিষ্ট হইলেন৫। ক্রমে সভাস্থ সকল ব্যক্তিই মহর্ষিকে পরম সমাদর পূর্বক কুশল প্রশ্নীদি করিতে লাঁগিলেন*৬। ধীনান্‌ বিশ্বামিত্র উপবিষ্ট সভ্যজন কর্তৃক পূজিত হইলে মহারাঁজ দশরথ পুনর্বার তাহাকে" অর্ঘ্য, বস্ত্র, অলঙ্কার গো প্রদান করিলেন৩৭ এবং অচ্চনাস্তে জীতমনে ক্রতাঞ্জলিপুটে সমাগত মহর্ষিকে বলিতে লাগিলেনতপ। সহর্ষে ! পারণধর্্মা

র্‌ অমৃত লাভ, পরলোকগত বন্ধুর দর্শন লাভ, দীর্ঘকাল অনাবুষ্টির পরে বারিবর্ষণ অন্ধের দৃষ্টি লাভ যজ্রপ, আমাদের সঙ্কন্ধে আপনার আঁগমন তদ্রপ অথবা তদপ্রেক্ষা অধিক আনন্দ প্রদত্*। হে তপোধন ! পুত্রবিহীন যুক্তির ধর্মপত্থীতে পুত্রোত্পত্তি দরিদ ব্যক্তির স্বপ্নে ধন লাভ যদ্ধপ, মাপনার আগমন আমাদের নিকট তজপ**। মানবগণ প্রিয়সমাগমে ও"প্রণষ্ট বস্ত্র লাভে যে প্রকার অনির্বচনীয় আনন্দ অন্থুভব করে আপনার আগমনে মামরা তদপেক্ষা অধিক আনন্দ লাভ করিয়াছিঃ১। স্থলচর মন্গয্যের থেচরত্ব শাভ হইলে ফেরূপ হর্যোদর হয় এবং মৃত ব্যক্তি ফিরিয়া আসিলে তর্দীয় ান্ষবের যেরূপ আনন্দ হয়, আপনার আগমনে আমি সেইরূপ আনন্দিত হুইয্সছি। এক্ষণে আমরা জানিতে চাহি, আপনার আগমন সুখে হই মাছে ? ব্রন্গলোকে বাস কাহার ন! প্রীতিপ্রদ হয়? হেমুনে! আমি সত্ম্ বপিতেছি, আপনার আগমন আমাদের ব্রহ্গলোকবাস সদৃশ সুখপ্রদ ৩। হে বিপ্র! আপনার অভিলাষ কি আমাকে আপনার কোঁন কার্য্য করিতে হইবে তাহা আদেশ করুন। আপনি পরম ধার্টিক, সুতরাং সৎপাত্র,' বিশেষতঃ অতিথিঃ

হে ব্রহ্ধন্! আপনি পূর্বে রাজর্ধি শব্দে অভিহিত হইতেন এক্ষণে তপো- বলে ব্রনগর্ষিত্ব প্রাপ্ত হইয়াছেন। দে কারণেও আপনি আমার পরম পুজ- নীয়ঃ* | যদ্রপ গঙ্গীজলাভিষেকে সকল সন্তাপ দূরীভূত শরীর শীতল হয়, তদ্রপ, ভবদীয় দর্শন আজ আমাদের সকল সন্তাপ দূরীকৃত শরীর মন স্থশীতল করিয়াছেঃও। মহর্ষে! আপনার ইচ্ছা, ভয়, ক্রোধ, রাগ অর্থাৎ বিষয়বাসনা 1ই, এবং রোগাদি..বিপদও নাই। অথচ আপনি আমার নিকট আগমন চুরয়াছেন, ইহা অত্যন্ত আশ্চর্য্যের বিষয়**। হে বেদবিংশ্রেষ্ঠ ! আপনি

8৪ বাশিষ্ঠ-মহারামায়ণ। সর্ণ

সাক্ষাৎ ব্রন্গস্বরূপ ; সুতরাং আপনার আগমনে আমি নিষ্পাপ হইয়মছি এবং আমার গৃহও পবিত্র হইয়াছে অধিক কি বলিব, আমি আজ্‌ যেন অমৃতময় চন্দ্রমুলে নিমগ্ন হইয়াছিণ৮। হে মুনে ! হে সাধো ! আমার জ্ঞান হইতেছে, আপনার আগমন সাক্ষাৎ ব্রদ্মের আগমন। সুতরাং ব্রহ্ম ভাব প্রাপ্ত আপনার আগমনে আমি নিতান্ত অন্গৃহীত পবিত্র হইয়াছিং*। আজ আমি 'আপনার আগমনজনিত পুণ্যে সাঁতিশয় অনূরঞ্রিত হইলাম এবং বুঝিলাম, আমার জন্ম জীবন সার্ক। আপনি আগমন করিয়াছেন ভাবিয়া, আপনাকে দেখিয়া আপনার পূজাদি করিয়া আমি এত আনন্দিত হইয়াছি যে, সে আনন্দ আমার অন্তরে পর্যাপ্ত হইতেছে না অধিকন্ত তাহা উচ্ছৃলিত হইতেছে। অর্থাৎ জঙলনিধি চন্ত্রকিরণ দর্শনে যদ্রপ হয় আমি তদ্রপ উচ্ছৃলিত হইতেছি৫৭।০১।

হে মুনি! আপনি গেজন্য আসিয়াছেন, এবং আমাকে যে কার্য্য করিতে হইবে, আপনি মনে কর্ন, তাহা সিদ্ধ বা করা হইযাছে। আপনি আমার চিরমাননীয়"ৎ। হেকুশিকনন্দন! কার্ধ্য দি হইবেক না, এন্ধপ বিবেচনা করিবেন না। কারণ, আপনাকে আমার অদেয় কিছুই নাই। অতএব, বিচার বা বিমর্শ (সন্দেহ) না করিয়া অন্ুমতি করুন, আপনার কোন্‌ কার্ধ্য সম্পাদন করিব। আমি ধর্মতঃ কহিতেছি, আপনি আমার পরম দেব এবং স্বামিই আপনার কল কার্য সম্পাদন করিবৎ৩৫৪ |

তব্জ্ঞানসম্পন্ন মহর্ষি বিশ্বামিত্র মহারাজ দশরথের এইরূপ শ্রতিনথখাবহ বিনয়গর্ভ বচনপরষ্পর! শ্রবণগোচর করিয়া পরম পরিতুষ্ট হইলেন

ষষ্ঠ সর্গ সমাপ্ত।

লি

সপ্তম সর্গ।

শাখা

বান্সীকি বদিলেন, ভরদ্বাজ! মহাতেজ। বিশ্বীমিত্র সেই রাজসিংহ দশরথের প্রনেকবিধ অছৃত বাক্য শ্রবণে পুলকিত হইরা বলিতে লাগিলেন১ হে রাজ- দুল ! 'এই পৃথিবীতে তূমি মহাবংশপ্রস্থত বশিষ্ঠবশবর্তী) জ্বতরাঁং তোমার টুপ বাকাগ্ররোগ সংগত উপ্ক্ত২। রাজন! যাহা আমার মনোগত ভাহা দ্লিতেছি, শ্রবণ পূর্বক তদনুবারী কার্যের অনুষ্ঠান ও.ধম্মপরিপালন করএ। রি পুক্ঘশেষ্ঠ ! আমি*সিদ্ধি লাভের উদ্দোশে যজ্ঞারস্ত করিলে রাত্রিঞ্চর গণ ্লিপিয়া তাহার বিদ্ব করে" বখন যখনই বজ্ঞানষ্টান দ্বারা দেবতা দিগকে রিতু উট করিতে প্রবৃত্ত হই তখন তখনই নিশাচনেরা বজ্ঞক্ষেত্রে আসিয়া ধিদ্রা- [নকরে" আমি নতবার হজ্জের উদ্যোগ করিয়াছি, প্রত্যেক উদ্যোঁগেই সৈই সেই পরাক্রান্ত রাক্ষসেরা আসিম্া আমার যজ্ঞভূমি রক্তমাৎসাদি বর্ষণ রা দুমিত করিযাছে। অনেকবার অনেক দ্রব্য বিনষ্ট হওয়ায় তৎপরে আঁর বজ্তানুানে উৎসাহ করি নাই, সেজন্ পরিশ্রম্ড করি নাই। সম্প্রতি মাকার বজ্জারন্ত করিয়া আপনাবর নিকট তত্প্রতিকারার৫ আগমন করিয়াঞ্ছি"।. াজছ! ক্রোধ ত্যাগ দারা অর্থাৎ শাপ প্রদান দানা তাহার গ্রতিকার করিতে, চ্ছা হয় নাঁ। কারণ, ক্রোপ্তভ্যাগী হইনাই অক্ঞান্ষ্ঠান করিতে হয়। অথচ মল না হইলে শাপ প্রদান করা ঘটে না” রাজন! আমি আপনার প্রসাদে নির্ষিদ্রে নন্র, সমাপন পূর্ব্বক মহাফল লাভ কর্শিব, এই প্রত্যাশার যক্জভুমি * পরিত্যাগ করতঃ আপনার নিকট আগমন করিরছি১। আনি নিতান্ত মার অর্থাং কাতর শরণপ্রার্থী, আমাকে রক্ষা কর। আমি জাঁনি, অর্থী ব্যক্তির নিন্নাশ সাধুদিগের নিতান্ত গ্রীনিকর১” | রাজন! তোমার পুজ রাম নিতান্ত শ্রীসম্পন্ন, মর্তসিংহের স্যার বিজ্ঞান্ত, মহেন্্সদৃশবীর্ধ্যশালী রাক্ষস বিনাশে দক্ষ১১। তোমার সেই বীর, কাকপক্ষধর, * সত্যপরাক্রম, জ্োষ্ঠ পুক্র রামকে প্রদান কর১২। রাঘ মদীর দিব্যতেজঃপ্রভাবে পরিরক্ষিত হইয়।

স্পিন শি তি পিপিপি পিপি

* ক্ষত্রিয় দিখের কর্ণসনীপন্থ কশগুচ্ছ কাকপক্ষ নাথে পর্সিচিত। ভাখা নাথ জুল্পি।

5২৬ বাশিষ্ঠ-মহারামায়ণ। সর্ণ

অনায়াসেই 'বিদ্বকারী রাক্ষসগণের মস্তক ছেদনে সমর্থ হইধেন»ৎ ।* আমিও ' ধন্প্রনাবান্থিত বহুন্ত্র বছুবিদ্য প্রদান করিয়া রামের পরম শ্রেয়: সাধন ক্লুরিব এবং তাহাতে তুমি ত্রিলোকমধ্যে পৃজ্য হইবে+* | যেতগ তুদ্ধকেশরীর সন্মুখে মৃখগণ অবস্থিতি করিতে সমর্থ হয় না, সেইরূপ, নিশাচত্ের! রণস্থলে রামের সম্মুখে অবস্থিতি করিতে সমর্থ হইবে না১৫। রাম ব্যতীত অন্য কেহ, তাহাদের সহিত যুদ্ধ করিতে উৎসাহী হইবে ন1। তুদ্ধ ফেশরী ব্যতীত অন্ত পণ্ড কি প্রমত্ত কুপ্তর নিগ্রহ করিতে পারে৯৬ ? একে তাহারা বলগর্কি্তি, পাগিষ্ঠ। যুদ্ধকালে কালকূট অপেক্ষাও তীব্র, কুদ্ধরুতান্তের স্যায় নিতান্ত দারুণ তাহাতে আবার তাহারা খরদূষণের ভৃত্য," | রাজন! তাঁদৃশ হইলেও তাহারা রামের তীক্ষ বাণ সহ করিতে পারিবে না। যদ্রপ ধূলিরাশি অবিশ্রাস্তধারাবর্ধী মেঘের বর্ষণে দ্রবিত হয়, তদ্রপ, নিশচিরেরাও রামব!ণবর্ষণে দ্রবিত অর্থাৎ নিবারিত হইবে হে নরনাথ! পুজন্গেহের বশবর্তী হইয়া! মদীয় প্রার্থনার প্রতিরোধ করিও না। কারণ এইযে, এই জগতে মহাত্মাদিগের অদেয় কিছুই নাই১৮।১৯। মহারাজ আমিজানিয়ছি এবং আপনিও জাঙ্কুন, বিক্বকারী সমস্ত: রাক্ষম রাম হস্তে নিহত হইয়াছে। আপনি ইহাঁও জানিবেন যে, মাদৃশ প্রা ব্যক্তিরা কখন সন্দিপ্ধ বিষয়ে প্রবৃত্ত হন না২"। আমি জানি, মহাতেজ! | বশিষ্ঠ জানেন, অন্ান্ত দূরদর্শী মহাত্মারাও জানেন যে, কমললোচন রাম মহাম্মা।